Breaking News

১ লক্ষ টাকার স্যামসাং মোবাইল মাত্র ৪৫০০ টাকা! এটা কি ডিজিটাল প্রতারনা?

আপনি যদি ফেসবুক ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন তাহলে নিশ্চয়ই দেখেছেন অনেকেই ফেইসবুকের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রোডাক্ট সেল করেন। কিন্তু ইদানিং অনেকেই ফেসবুকের মাধ্যমে মানুষের সামনে টোপ ফেলে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। প্রতারনার অভিযোগ আসছে অনেক। অনেক সহজ সরল মানুষ সেই ভয়ানক প্রতারনার ফাঁদে পা দিয়ে হারিয়েছেন তাদের টাকা।

১ লক্ষ টাকার স্যামসাং মোবাইল সেট মাত্র ৪৫০০ টাকা

আজ তেমনি এক অসঙ্গতির কথা আপনাদের সামনে তুলে ধরবো। আপনারা নিশ্চয়ই জানেন “স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৯ প্লাস” অরিজিনাল সেটের বর্তমান দাম প্রায় ১ লক্ষ ৬ হাজার টাকা। সেই মোবাইল সেটের দাম যদি আপনি দেখেন মাত্র ৪৫০০ টাকা! তাহলে লোভ সামলাতে পারবেন তো? যদি লোভ সামলাতে পারেন তাহলে আপনি প্রতারনার হাত থেকে বেঁচে যাবেন। আর যদি লোভ সামলাতে না পেরে সেই ডিজিটাল প্রতারনার ফাঁদে পা দেন তাহলে আপনি নিশ্চয়ই প্রতারিত হবেন।

কারন, ইদানিং অনেক প্রতারক ফেইজবুক পেইজের মাধ্যমে অরিজিনাল মোবাইল সেট ডিসকাউন্টে বিক্রি করার এড দিচ্ছে। ১ লক্ষ টাকার “স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৯ প্লাস” সেট মাত্র ৪৫০০ টাকা! তাও আবার ১২ মাসের মানিবেক গ্যারান্টি এবং ২ বছর ওয়ারেন্টি! শুধু স্যামসাং না অনেক দামি ব্রান্ডের দামি দামি মোবাইল সেট বিক্রির এড তার দিচ্ছে। প্রথম দেখাতেই যে কেউ বুঝবে এটা পরিষ্কার প্রতারনা। কিন্তু অনেক সহজ সরল মানুষ সেই ভয়ানক প্রতারনার ফাঁদে পা দিচ্ছেন।

ডিজিটাল প্রতারনা

তারা মানুষকে বলে যে কুরিয়ারের মাধ্যমে সেট পাঠাবে। সেট পাওয়ার পর মুল্য পরিশোধ করবেন। এটাই মূলত সুক্ষ প্রতারন। কারন তারা কুরিয়ার সার্ভিসের চার্জ হিসেবে ১৫০টাকা অর্ডারের শুরুতেই নিয়ে নেয়। অনেকে ১৫০ টাকা কম মনে করে দিয়ে দেয় কিন্তু পরে আর মোবাইল সেট পায় না। শেষে বুঝতে পারেন যে প্রতারিত হয়েছেন। কিন্তু লোক-লজ্জার কথা ভেবে কাউকে কিছু বলেন না। অনেকে আবার ক্লোন সেট ভেবে অর্ডার দেন। কিন্তু আপনি এই বিষয়টা কেন বুঝলেন না এত দামি সেট ক্লোন করতেও তো অনেক খরচ হয়। তাহলে কিভাবে তারা ১ লক্ষ টাকার সেট মাত্র ৪৫০০ টাকায় দেয়?

আমরা বিষয়টি বুঝার জন্য তাদের নাম্বারে কল করেছিলাম। প্রথমেই আমারা জিজ্ঞেস করলাম এত দামি মোবাইল আপনারা কিভাবে এত কম দামে বিক্রি করেন? তারা বলল ডিস্কাউন্টে বিক্রি করছি। আমরা আবার জিজ্ঞেস করলাম ডিস্কাউন্টে বিক্রির জন্য এট সেট আপনারা কোথায় পান? আপনাদের তাতে লাভ কি? আমাদের প্রশ্ন শুনে বিরক্ত হয়ে কল কেটে দিলেন।

আবার ফোন করে জিজ্ঞেস করলাম আপনাদের দোকান বা অফিস কোথায়? অফিসে এসে সেট দেখে ক্রয় করা যাবে কিনা? তাদের উত্তর হলো, তাদের কোন দোকান নেই। অনলাইনে বিক্রি করেন। তারপর আমরা অনলাইন থেকে ক্রয় করার প্রোসেস জিজ্ঞেস করাতে তারা বললো ১৫০ টাকা কুরিয়ার খরচ বিকাশ করে সেটের অর্ডার করতে হবে। আমরা বললাম যদি সেট না পাই বা সেই কাঙ্খিত সেট না পাই তাহলে কি হবে? এবার তারা বিরক্ত হয়ে বললেন যে নিলে নে না হয় কল রেখে দিন। আমাদের মনে হলো এই ১৫০ টাকাই তাদের ব্যাবসা। ভাবুন যদি ৫০০০ জন সহজ সরল মানুষও যদি ১৫০ টাকা করে তাদের বিকাশ করেন তো তাদের ইনকাম হবে ৭৫০,০০০ (সাড়ে সাত লক্ষ) টাকা।

এই প্রতারনার শেষ কোথায়? একটি বা দুটি ফেইসবুক পেইজ নয়। শত শত পেইজ খুলে চলছে এই প্রতারনার ব্যবসা।  এ বিষয়ে আপনার যদি কোন অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে বিস্তারিত কমেন্টে জানিয়ে দিন…

Check Also

পুলিশের নাম ও লোগো ব্যবহার

পুলিশের নাম ও লোগো ব্যবহার করে খোলা সকল পেইজ ও চ্যানেলের এডমিনদের দৃষ্টি আকর্ষণ

বাংলাদেশ পুলিশের ভেরিফাইড ফেইজবুক পেইজ থেকে কপি করে এই খবরটি প্রচার করা হলো। বাংলাদেশ পুলিশের …

Leave a Reply