Breaking News

হ্যাশট্যাগ মিটুঃ ভারতে যৌন হেনস্তার বিপক্ষে চলমান সাইবার আন্দোলন

মিটু হ্যাশট্যাগ সাইবার আন্দোলনে তোলপাড় বলিউডপাড়া। ফেসবুক সহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একের পর এক যৌন হেনস্তাকারী বা অপরাধীর নাম প্রকাশ করছে ভুক্তভোগীরা। কৌতুক অভিনেতা, অভিনেতা, সাংবাদিক, পরিচালক, লেখক থেকে শুরু করে প্রায় সব মাধ্যমের পুরুষদের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তা ও নির্যাতনের অভিযোগ উঠছে। তবে এই সাইবার হ্যাশট্যাগ আন্দোলন কতটুকু যৌক্তিক বা সফল হবে তা নিয়ে সমালোচনাও হচ্ছে অনেক । আদৌ কি তাঁরা নির্যাতনের শিকার হয়েছেন, নাকি তাঁদের সম্মতিতেই এমনটা ঘটেছিলো, সেটা নিয়ে অনেক বিখ্যাত মানুষও প্রশ্ন তুলছেন।

মিটু হ্যাশট্যাগ

আসলে পৃথিবীতে নারীদের এমন অভিযোগের শুরুটা যে কবে থেকে সেটা বলা মুশকিল। কারন যুগ যুগ ধরেই নারীরা যৌন নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। তবে লোকলজ্জা ও সমাজের ভয়ে মুখে কুলুপ এঁটে রেখেছেন অনেকে। অনেকে অনেকসময় প্রতিবাদ করেছেন। তবে এবার বাঁধ ভাঙার মতো সময় এসেছে বলে তাঁরা মনে করছেন। আপনাদের মনে আছে কি যে আইন বিভাগের এক শিক্ষার্থী ২০১৭ সালে ফেসবুকে ৫০ জন অধ্যাপকের তালিকা দিয়েছিলেন যারা ছাত্রীদেরকে যৌন হেনস্তা করতেন। তবে ওইসময় সেই ঘটনায় যতটা আলোড়ন সৃষ্টি না করে তার চেয়ে এখন বলিউডপাড়ায় অনেক বেশি তোলপাড়। কারণ, এবারের অভিযুক্ত ব্যক্তিরা সবাই সমাজে, আন্তর্জাতিক লেভেলে বেশ পরিচিত।

মুম্বাইয়ে গত বৃহস্পতিবার কৌতুক অভিনেতা উৎসব চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে তারই সহকর্মী আরেক নারী কৌতুক অভিনেতা অভিযোগ তোলেন। ৩৩ বছরের উৎসব চক্রবর্তী ওই নারী অভিনেত্রীকে নাকি নোংরা বার্তা পাঠাতেন তার সোসাল একাউন্টে। টুইটারে ওই নারী এই ঘটনার কথা প্রকাশ করেছেন। এরপরই একাধিক টুইটে ওই নারী কৌতুক অভিনেতা বিস্তারিত বিবরণ দিয়ে জানান যে উৎসব চক্রবর্তী কীভাবে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দিনের পর দিন নগ্ন ছবি চাওয়ার সাথে অশালীন মন্তব্য ও যৌন হেনস্তা করেছেন নারীদেরকে। উৎসবের সাথে ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরীর কথোপকথনের স্ক্রিনশটও তিনি শেয়ার করেন।

উৎসব চক্রবর্তী এই অভিযোগ ওঠার পরদিন নিজের কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। এরপর আরো অনেক নারী অনেক খ্যাতনামা ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে তুলে ধরেন। গত কয়েক দিনে অভিনেতা, কৌতুক অভিনেতা, সাংবাদিক, সম্পাদক, লেখক, ও চলচ্চিত্র নির্মাতা-প্রযোজকদের বিরুদ্ধে উঠে এসেছে যৌন হেনস্তার অভিযোগ। তাই হ্যাশট্যাগ মিটু আন্দোলনে এখন জ্বলছে বলিউড টাউন।

বলিউডের অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত যৌন লাঞ্ছনার অভিযোগ তুলেছেন অভিনেতা নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে। পুরো ভারত এই নিয়ে এখন তোলপাড়। তনুশ্রীর এই ঘটনা প্রকাশের পরই আবার অভিযোগ উঠেছে তন্ময় ভট্ট, লেখক চেতন ভগত, ও গুরসিমরন খাম্বার মতো পরিচিত জনের বিরুদ্ধে। রজত কাপুরের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন দুই নারী। গত রোববার তাই টুইটারে ক্ষমা চেয়েছেন অভিনেতা রজত কাপুর। অভিনেতা হৃতিক রোশনও এর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তিনি এইসকল অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠিন পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

 

Check Also

প্রেমিককে হত্যার পর মাংস রান্না

প্রেমিককে হত্যার পর মাংস রান্না করে তা দাওয়াত করে খাওয়ালো প্রেমিকা

আরব আমিরাতে এক নারী তার প্রেমিককে খুন করে রান্না করে খেয়ে ফেলেছেন। ঘরে মানুষের দাঁত …

Leave a Reply